Swasthya Sathi Card: বদলে গেল স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের নিয়ম, নতুন নিয়মে কতটুকু সুবিধা পাবেন? জেনে নিন

Swasthya Sathi Card

Swasthya Sathi Card: পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ সাল থেকে মুখ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প চালু করেছেন। যে কোন পরিবার এবং যে কোন ব্যক্তি, বয়স নির্বিশেষে এই প্রোগ্রামের আওতায় আসতে পারে। এটি একটি পরিবারকে বার্ষিক ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্য কভারেজ প্রদান করে। প্রোগ্রামটি সম্পূর্ণরূপে নগদহীন, কাগজবিহীন এবং স্মার্ট কার্ড-ভিত্তিক, এবং এটি সম্পূর্ণরূপে রাজ্য সরকার দ্বারা স্পনসর করা হয়। 

এতদিন পর্যন্ত স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর মাধ্যমে বহু মানুষ উপকৃত হয়েছেন। উপকারের পাশাপাশি এই কার্ড নিয়ে অনেক টাকা পয়সা নয়-ছয় হওয়ারও খবর উঠে এসেছে। এমন অনেক মানুষ আছেন যারা সামান্য কোন অসুখ নিয়ে এমনকি জ্বর, সর্দি, কাশি নিয়েও হাসপাতালে বা নার্সিংহোমে ভর্তি রয়েছেন স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের মাধ্যমে টাকাটি পাওয়ার জন্য। অপরদিকে নার্সিংহোমগুলো স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর মাধ্যমে বিল পেমেন্ট এর ক্ষেত্রে অনেক টাকা চার্জ করে বসছে।

আরও পড়ুন: Free Sewing Machine Scheme: আপনি কি সেলাইয়ের কাজ জানেন? তবে আজই পান কেন্দ্রীয় সরকারের এই সুবিধাটি

প্রতিদিনই কোন না কোন রোগই সামান্য কোন ছুতো নিয়ে হাসপাতাল বা নার্সিংহোমে ভর্তি হচ্ছে। নার্সিং হোম গুলো টাকা কামানোর একটি উপায় করে নিয়েছে এই স্বাস্থ্য সাথী কার্ডকে। অতিরিক্ত বিল তৈরি করে সরকারের থেকে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর মাধ্যমে টাকা লুফে নিচ্ছে। তাই এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেশ কিছু নতুন নিয়ম আনলেন এই স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নিয়ে।

১) কোন রোগীকে হাসপাতালে ন্যূনতম ১০ দিন ভর্তি থাকলে তবেই তা মেডিকেল অডিট হিসেবে ধরা হবে। মেডিকেল অডিটের পরেই বিবেচনা করা হবে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর মধ্যে টাকা উপলব্ধ হবে কিনা।

২) যে কোন অপারেশন ও গাইনোকোলজিক্যাল অপারেশনের জন্য নতুন নিয়ম আনা হয়েছে। শুধুমাত্র যে রোগের জন্য অপারেশন হবে সেই টাকায় ধার্য করবে। কোনো উপরোক্ত কোন খরচ এই কাজের মাধ্যমে দেওয়া হবে না।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url