পেয়ে যান সরকার থেকে মাসিক ১০০০ টাকা করে একদম ঘরে বসেই, কিভাবে?

West Bengal Old Age Pension Scheme
পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল সরকার শাসনে আসার পর বিভিন্ন প্রকার প্রকল্প চালু হয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দ্বারা পরিচালিত এই বিভিন্ন প্রকল্পের মধ্যে একটি অন্যতম হলো ‘বার্ধক্য ভাতা’। তিনি প্রথমে প্রতিটি পরিবারের মহিলাদের জন্য লক্ষী ভান্ডারের মাধ্যমে মাসিক একটি ভাতা দেওয়ার প্রকল্প চালু করেন। এরপর ধীরে ধীরে মেয়েদের পড়াশোনার জন্য কন্যাশ্রী প্রকল্প, বিয়েতে যাতে কোনরকম বাধা না আসে তার জন্য রূপশ্রী প্রকল্প ইত্যাদির মাধ্যমে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। এরই পাশাপাশি সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য নিয়ে আসেন বার্ধক্য ভাতা বা ওল্ড এজ পেনশন স্কিম।

২০২৪ এর লোকসভা হওয়ার আগেই তিনি লক্ষী ভান্ডার নিয়ে এক বিরাট ঘোষণা করেন। পূর্বে জেনারেল কাস্টের মহিলারা পেতেন মাসিক ৫০০ টাকা করে এবং S.C./S.T./O.B.C এই সমস্ত কাস্টের মহিলারা পেতেন মাসিক ১০০০ টাকা করে। তবে গত এপ্রিল মাসে থেকে এই টাকার অংক বেড়ে ৫০০ টাকা বেড়ে ১০০০ টাকা হয়েছে এবং ১০০০ টাকা বেড়ে ১২০০ টাকা হয়েছে।

কারা বার্ধক্য ভাতা পাবেন?

যে সমস্ত ব্যক্তিরা সরকারি চাকরির সঙ্গে যুক্ত তারা ৬০ বছর পর চাকরি থেকে অবসর নেওয়ার পর শেষ জীবন পর্যন্ত পেনশন পেয়ে থাকেন। কিন্তু এরকম মানুষের সংখ্যা খুবই কম। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে খাওয়া মানুষের যখন ৬০-এ পা দেন, তখন দুর্বল হয়ে পড়েন এবং ওই দুর্বল শরীর নিয়েই তাদেরকে খেটে ইনকাম করতে হয়। তাই তাদের কষ্ট খানিক লাঘব করার জন্যই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৬০ বছরের পর থেকেই প্রত্যেকটি ব্যক্তির জন্য এই বার্ধক্য ভাতার ব্যবস্থা করেছেন

বার্ধক্য ভাতায় মাসিক কত টাকা দেওয়া হবে?

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের প্রকল্প বার্ধক্য ভাতায় মাসিক ১০০০ টাকা করে দেওয়া হয়।

বয়স:

যে সমস্ত ব্যক্তিদের বয়স ৬০ বছর তারা এই প্রকল্পের জন্য আবেদনযোগ্য। এ ছাড়া বিশেষ অবস্থায় কোন ব্যক্তি ৫৫ বছর বয়সেও আবেদন করতে পারেন।

আবেদন পদ্ধতি:
  • পাসপোর্ট ফটো
  • কাস্ট শংসাপত্রের অনুলিপি
  • যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ডিজিটাল শংসাপত্রের অনুলিপি
  • ডিজিটাল রেশন কার্ড
  • আধার কার্ড
  • ভোটার আইডি
  • আবাসিক শংসাপত্রের অনুলিপি (স্ব-ঘোষণা)
  • আয়ের শংসাপত্রের অনুলিপি (স্ব-ঘোষণা)
  • ব্যাঙ্ক পাস বুকের কপি

উক্ত সমস্ত নথিগুলি থাকলে পঞ্চায়েত বা পৌরসভার মাধ্যমে বার্ধকতার জন্য আবেদন করা যাবে।

বিশেষ ঘোষনা:

২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে দুর্দান্ত ফলের পর আরো ৫০ হাজার মানুষের নাম নথিভুক্ত করা হবে এই বার্ধক্য ভাতায়।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url